পর্তুগালে উদযাপিত হলো ঈদুল আজহা

Vinkmag ad

পর্তুগাল সরকারের চলমান স্বাস্থ্যবিধি রাজধানী লিসবন ও বাণিজ্যিক বন্দর নগরী শহর পোর্তো, পর্যটন ও কৃষি সমৃদ্ধ শহর আলগ্রাব, স্থাপত্য নগরী কোইমব্রায় ও কৃষি শহর ওডিমিরায় পালিত হলো ঈদুল আজহা।

তবে বাংলাদেশি অধ্যুষিত পর্তুগালের লিসবনের মাতৃ মনিজ পার্কের মাঠে বর্তমান করোনা পরিস্থিতি বিবেচনায় এবারো খোলা মাঠে ঈদুল আজহার নামাজের জামাত আয়োজনের অনুমতি দেয়নি প্রশাসন। তবে সরকারের স্বাস্থ্যবিধি মেনে লিসবনের বাঙালি অধ্যুষিত মুরারিয়া এলাকায় বায়তুল মোকারম জামে মসজিদে (বড় মসজিদ) সকাল ৭টায় প্রথম জামাত অনুষ্ঠিত হয়। এছাড়া ৮টা, ৮টা ৩০ মিনিট, ৯টা, ৯টা ৩০ মিনিট ও ১০টায় ঈদ জামাত এবং মাতৃ মনিজ জামে মসজিদে সকাল ৬টা ৪৫ মিনিটে শুরু হয়ে ১০টায় সর্ব শেষ জামাতসহ মোট ১০টি সহ মোট ১৬টি ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয়।

এছাড়াও লিসবন সেন্ট্রাল জামে মসজিদে সকাল ৬টা, ৬টা ৫০ মিনিট ও ৯টা ৫০ মিনিটে ৩টি জামাত, অদিভেলাস আয়েশা সিদ্দিকা (রা.) জামে মসজিদে সকাল ৭টা, ৭টা ৩০ মিনিট, ৮টায় ৩টি ঈদের জামাত, সাকাভেমে সকাল ৬টা ৫ মিনিট ও ৯টায় দুটি।

ওডিমিরার বাংলাদেশ কমিউনিটির আয়োজনে সকাল ৮ টা ৩০ মিনিটে ১টি, সহ পোর্তোর বাঙ্গালি অধ্যুষিত রুয়া দে লউরেইরোর হযরত হামযা (রা.) জামে মসজিদে সকাল ৭টা ৩০ মিনিট এবং ৮টা ৩০ মিনিটে ২টি, হযরত বেলাল (রা.) জামে মসজিদে সকাল ৬টা ৪০ মিনিট, ৭টা ২০ মিনিট, ৮টায় ৩টি ঈদ জামাত, কাসকাইস বাংলাদেশি জামে মসজিদে একটি ঈদের জামাত, বন্দর নগরী ও বাণিজ্যিক শহর পোর্তোর মিনদেলো পাইকারি বাজার মসজিদে একটি, কোইমব্রা জামে মসজিদে সকালে একটি, কোইমব্রা জামে মসজিদে সকালে একটি ঈদের জামাতসহ পর্তুগালের বিভিন্ন শহরের আশপাশের বিভিন্ন মসজিদেও উল্লেখযোগ্য বিপুল সংখ্যক মুসলমান ঈদ উৎসব পালন করেন।

বায়তুল মোকাররম জামে মসজিদ এবং মাতৃ মনিজ জামে মসজিদে ১৬টি ঈদ জামাতে প্রবাসী বাংলাদেশিসহ পর্তুগালে অবস্থানরত বিভিন্ন দেশের প্রায় তিন হাজার মুসল্লি অংশ নেয়। লিসবন বাইতুল মোকাররম মসজিদের প্রথম জামাত পরিচালনা করেন মাওলানা অধ্যাপক আবু সাইদ এবং মাতৃ মনিজ জামে মসজিদের প্রথম নামাজ পরিচালনা করেন মাওলানা আলা উদ্দিন।

Read Previous

করোনাভাইরাস: ৪ আরব দেশে ঈদের নামাজ বাতিল ঘোষণা

Read Next

জার্মানিতে ঈদ উল আজহা উদযাপিত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *